ads

কোটা পদ্ধতি বাতিলের ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, সংবাদ২৪.নেট, ঢাকা: সরকারি চাকরিতে সকল ধরনের কোটা বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘কোটা নিয়ে যখন এতকিছু, তখন কোটাই থাকবে না। কোনও কোটারই দরকার নেই। কোটা থাকলেই সংস্কারের প্রশ্ন আসবে। এখন সংস্কার করলে আগামীতে আরেক দল আবারও সংস্কারের কথা বলবে। কোটা থাকলেই ঝামেলা। সুতরাং কোনও কোটারই দরকার নেই। কোটা ব্যবস্থা বাদ, এটাই আমার পরিষ্কার কথা। আন্দোলন যথেষ্ট করেছে, এবার তারা বাড়ি ফিরে যাক।’

 

বুধবার (১১ এপ্রিল) জাতীয় সংসদ প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্ন-উত্তর পর্বে তিনি এসব কথা বলেন।

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিসিএস পরীক্ষায় যারা অংশগ্রহণ করে তারা সবাই মেধাবী। কেউ মেধা ছাড়া নাই। সকলকে বিসিএস পরীক্ষায় রিটেন পাস করে আসতে হয়। আমার ইতিমধ্যে মেধা থেকে নিয়োগ দেয়া শুরু করেছি। এ বিষয়টি না দেখেই অনেকে কথা বলছেন। তিনদিন ধরে ছেলেমেয়েরা আন্দোলন করছে। রাস্তায় গাড়ি চলতে পারে না। রোগী নিয়ে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে মানুষকে। জেলা কোটা ভিত্তিতে নিয়োগ দেয়া হয়। এখন দেখি সব জেলায় আন্দোলন করা শুরু করেছে। মেয়েরাও কোটা চায় না। তারা বলেছে এমনি চলে আসতে পারবে। তাই কোন কোটার দরকার নাই। মেধার মাধ্যমে নিয়োগ দেয়া হবে।

 

তিনি বলেন, কোটা রাখা হয়েছিল যেন কোন শ্রেণী বঞ্চিত না হয়। তাদের জন্য এক ধরনের কোটা। প্রতিবন্ধী ও ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী যারা আছে তাদের আমরা অন্য মাধ্যমে চাকরি দিয়ে দিতে পারব। সবাই যখন কোটা চায় না, তাহলে কোন কোটার দরকার নাই।

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবি শুনে বিষয়টি পরীক্ষা-নিরীক্ষার আশ্বাস দেয়ার পরও শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার অযৌক্তিক। ‘

 

 

আন্দোলনের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাড়িতে হামলার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ জানিয়ে তিনি বলেন, এই হামলার ছবি দেখে মনে হয়েছে ১৯৭১ সালের পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর মতো তাণ্ডব চালানো হয়েছে। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই। এ ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। যারা ভাংচুর লুটপাটে জড়িত, তাদের বিচার হতে হবে। লুটের মাল কোথায় আছে? তা ছাত্রদেরই বের করে দিতে হবে।’

 

শেখ হাসিনা বলেন, ‘ইতিমধ্যে গোয়েন্দা সংস্থাকে বলা হয়েছে, কারা ভিসির বাড়িতে হামলা চালিয়েছে তাদের বের করে শাস্তির আওতায় আনতে হবে।’

 

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‌দেখে দুঃখ লাগে, ছেলেমেয়েরা সমস্ত লেখাপড়া বন্ধ করে কোটার সংস্কার চেয়ে আন্দোলনে নেমেছে। রোদের তাপে পুড়ে ওরা তো অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে। তাদের অবরোধের কারণে মানুষ হাসপাতালে যেতে পারছে না। অফিস-আদালতে ঠিকভাবে যেতে পারছে না।’

Facebook Comments

এ সংক্রান্ত আরো খবর




সম্পাদক: আরিফা রহমান

২৮/এফ ট্রয়োনবী সার্কুলার রোড, ৫ম তলা, মতিঝিল, ঢাকা।
সর্বক্ষণিক যোগাযোগ: ০১৭১১-০২৪২৩৩
ই-মেইল ॥ sangbad24.net@gmail.com
© 2016 allrights reserved to Sangbad24.Net | Desing & Development BY Popular-IT.Com, Server Manneged BY PopularServer.Com