ads

নেতাকর্মীদের জেগে উঠার আহবান ফখরুলের

মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক, সংবাদ২৪.নেট, ঢাকা: নেতা-কর্মীদের জাগ্রত হওয়ার ও রাজপথে নামার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে সবাই বিক্ষোভে ফেটে পড়ুন, উঠে দাঁড়ান, জাগ্রত হউন। আন্দোলন, আন্দোলন, আন্দোলন। গণতন্ত্রের মাতাকে মুক্ত করতে আন্দোলনের কোনও বিকল্প নেই। শান্তিপূর্ণ এবং নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমেই দেশনেত্রীকে কারামুক্ত করবো এবং এদের (আওয়ামী লীগ) পতন ঘটাবো আমরা।’

 

 

শনিবার বিকেলে রাজধানী ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বিএনপি আয়োজিত মহান স্বাধীনতা দিবসের আলোচনায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

 

 

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমাদের গণতন্ত্রের মাতা, আমাদের মা আজ কারাগারে বন্দি। দেশে গণতন্ত্র যতটুকু অর্জন হয়েছিল তা আজ ভূলুণ্ঠিত। যিনি স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে দীর্ঘ নয় বছর সংগ্রাম করেছিলেন, গৃহবধূ হয়েও দেশের পথে-প্রান্তরে গণতন্ত্রের জন্য দিনের পর দিন ছুটে বেরিয়েছেন সেই মা’কে আজ স্বৈরাচারি সরকার কারাবন্দি করেছে।’

 

 

শান্তিপূর্ণ, নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন করছে দাবি করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমরা এই শান্তিপূর্ণ, নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের মধ্য দিয়েই ভোটারবিহীন সরকারের, একনায়কতন্ত্রের পতন ঘটাবো। বাধ্য করবো দেশনেত্রীসহ আমাদের সকল রাজবন্দিদের মুক্তি দিতে।’

 

 

“দেশের মানুষ অপেক্ষা করছে, সুযোগ পেলে এই সরকারকে চিরতরে উৎখাত করবে”- যোগ করেন তিনি।

 

 

‘মির্জা ফখরুল সারাদিন মিথ্যা কথা বলেন’ সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া এমন বক্তব্যের প্রেক্ষিতে ফখরুল বলেন, ‘আমাদের অবৈধ সরকারের, অবৈধ প্রধানমন্ত্রী নিজে যেটা করেন তিনি মনে করেন সেটা অন্যরাও করছে। আমাকে অনেকে বলেন এসব কথার উত্তর দেন না কেনো? আমি বলেছি এগুলোর উত্তর দেওয়া আমাদের রাজনৈতিক সংস্কৃতিতে বাধে, আমাদের রুচিতে বাধে। রাজনৈতিক শিষ্টাচারে বাধে। আপনি (প্রধানমন্ত্রী) বলুন যে দেশের মানুষের জন্য কী করেছেন? দেশের সব প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করেছেন, গণতন্ত্রের কবর রচনা করেছেন- এটুকুইতো।’

 

 

আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের চেতনাকে সম্পূর্ণ ধ্বংস করেছে দাবি করে বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘স্বাধীনতার ৪৭ বছর পড়েও গায়ের জোরে, পিস্তল ঠেকিয়ে গোটা দেশকে বন্দি করেছে সরকার। এদের চরিত্রটাই এমন। ’৭৪ সালে তারা বাকশাল কায়েম করে গণতন্ত্রকে ধ্বংস করেছিল। সেখান থেকে দেশেকে গণতন্ত্রের পথে ফিরে এনেছিলেন শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান।’

 

 

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি স্থায়ী কমিটির প্রবীণ সদস্য ড.খন্দকার মোশাররফ হোসেন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ‘আন্দোলনের মাধ্যমে নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের দাবি আদায় করেই আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে, সেই নির্বাচনে বিএনপির নেতৃত্ব দিবেন বেগম খালেদা জিয়া। তাঁকে ছাড়া এদেশে আর কোনও নির্বাচন হতে দেয়া হবে না।’

 

 

বিএনপির এই নীতিনির্ধারক দলটিকে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনে বাধা দেয়ার অভিযোগ এনে সরকারের সমালোচনা করে বলেন, ‘আমাদেরকে শান্তিপূর্ণ সমাবেশের অনুমতি দেয়া হচ্ছে না। অথচ তারা (আ.লীগ) সারাদেশে সরকারি খরচে ভোট চেয়ে জনগণকে জোর করে ভোটের ওয়াদা করাচ্ছেন। এটা কেমন গণতন্ত্র?’

 

 

বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন- স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দীন সরকার, মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, ড.আব্দুল মঈন খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস-চেয়ারম্যান এনাম আহমেদ চৌধুরী, ব্যারিস্টার শাজাহান ওমর বীর উত্তম, ডা: এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, ফজলুর রহমান, হাবিবুর রহমান হাবিব, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল সহ বিএনপি ও এর সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

Facebook Comments

এ সংক্রান্ত আরো খবর




সম্পাদক: আরিফা রহমান

২৮/এফ ট্রয়োনবী সার্কুলার রোড, ৫ম তলা, মতিঝিল, ঢাকা।
সর্বক্ষণিক যোগাযোগ: ০১৭১১-০২৪২৩৩
ই-মেইল ॥ sangbad24.net@gmail.com
© 2016 allrights reserved to Sangbad24.Net | Desing & Development BY Popular-IT.Com, Server Manneged BY PopularServer.Com