ads

বদলা নিল রাশিয়া : সম্পর্কে আরও অবনতির

ট্রাম্প-পুতিন

সংবাদ২৪.নেট ডেস্ক: মার্কিন ৬০ কূটনীতিককে বহিষ্কারের ঘোষণা দিয়েছে রাশিয়া। এর পাশাপাশি সেন্ট পিটার্সবার্গে অবস্থিত মার্কিন কনস্যুলেটও বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে মস্কো। যুক্তরাষ্ট্র থেকে রুশ কূটনীতিকদের বহিষ্কারের জবাবে গত বৃহস্পতিবার রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সার্গেই লাভরভ এই ঘোষণা দিয়েছেন। খবর বিবিসি, সিএনএন’র

 

 

বার্তা সংস্থা সিএনএনের খবরে বলা হয়, রাশিয়ায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত জন হান্টসম্যানকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করে এই সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে।

 

 

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ জানান, যুক্তরাষ্ট্র থেকে রুশ কূটনীতিকদের বহিষ্কারের প্রতিবাদে রাশিয়া থেকে মার্কিন কূটনীতিকদের বহিষ্কার করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি সেন্ট পিটার্সবার্গে অবস্থিত মার্কিন কনস্যুলেট বন্ধ করে দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

 

 

সাবেক রুশ গোয়েন্দা কর্মকর্তা সের্গেই স্ক্রিপাল ও তার মেয়ের ওপর বিষ প্রয়োগের (নার্ভ এজেন্ট) ঘটনায় পাল্টাপাল্টি বহিষ্কারের এই ঘটনা ঘটল। একই কারণে যুক্তরাজ্যের মিত্র অন্তত ২০টি দেশ শতাধিক কূটনীতিক বহিষ্কার করেছে। পরে গত সোমবার ৬০ রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করে যুক্তরাষ্ট্র।

 

 

এর আগে যুক্তরাজ্য ২৩ রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করে। প্রতিশোধ হিসেবে রাশিয়াও সমানসংখ্যক ব্রিটিশ কূটনীতিক বহিষ্কার ও দেশটিতে অবস্থিত বেশ কয়েকটি ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়।

 

 

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ জানিয়েছেন, মার্কিন এই ৬০ কূটনীতিকের মধ্যে ৫৮ জন মস্কোয় এবং দু’জন ইকাটেরিনবার্গে নিযুক্ত ছিলেন। তাদের ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা করে ৫ এপ্রিলের মধ্যে রাশিয়া ছাড়তে বলা হয়েছে।
রাশিয়ার জাতীয় বার্তা সংস্থা টিএএসএস দেশটি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বরাত দিয়ে জানায়, যেসব দেশ রাশিয়ার কূটনীতিক বহিষ্কার করেছে, তাদের বিরুদ্ধেও এমন ব্যবস্থা নেয়া হবে। এর উত্তর হিসেবে মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র হেদার নাওয়ার্ট বলেছেন, মস্কোর আসলে ভুক্তভোগীর মতো আচরণ করা উচিত নয়।

 

 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাশিয়ার কূটনীতিকদের বহিষ্কারের প্রতিবাদে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী যে দাবি করেছেন, তা নাকচ করে দেন নাওয়ার্ট। তিনি বলেন, এটাকে কূটনৈতিক ইটের বদলে পাটকেল হিসেবে দেখছি না আমরা। হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র সারাহ স্যান্ডার্স এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, রাশিয়ার এই সিদ্ধান্তের ফলে দুই দেশের (রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র) সম্পর্ক আরও অবনতির দিকে যাচ্ছে।

 

 

গত ৪ মার্চ ব্রিটেনের সলসবেরির উইল্টশায়ারে একটি পার্কের বেঞ্চ থেকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পক্ষত্যাগী সাবেক রুশ গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপাল (৬৬) এবং তার মেয়ে ইউলিয়াকে (৩৩) উদ্ধার করা হয়। পরে জানা যায়, তাদের ওপর নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করা হয়েছিল। তারা ঐ দিন যে রেস্তোঁরায় খাবার খেয়েছিলেন, সেই রেস্তোরাঁর টেবিলে পুলিশ নার্ভ এজেন্টের আলামত পায়।

 

 

সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন সত্তর ও আশির দশকে এ সিরিজের নার্ভ এজেন্টগুলো তৈরি করেছে। সেগুলো সবচেয়ে মারাত্মক নার্ভ এজেন্ট (উচ্চ-ক্ষমতাসম্পন্ন বিষাক্ত রাসায়নিক) হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে।

 

 

এ ঘটনায় রাশিয়ার হাত রয়েছে বলে গত সপ্তাহে ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেতারা একমত হন। তবে অভিযোগ আসার পর থেকেই রাশিয়া তা অস্বীকার করে আসছে। এই অভিযোগকে ‘প্রলাপ’ বলে আখ্যাও দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন।

 

 

এরপরও যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্তত ২১টি দেশ থেকে শতাধিক রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কারের ঘোষণা দেয়া হয়। এই ঘটনাকে ‘অগ্রহণযোগ্য’ বলে মত দেন লাভরভ। সের্গেই স্ক্রিপাল রাশিয়ার সামরিক গোয়েন্দা সংস্থার সাবেক কর্নেল ছিলেন। ২০০৬ সালে তার বিরুদ্ধে বিশ্বাসঘাতকতার অভিযোগ ওঠে। তারপর তার ১৩ বছরের কারাদণ্ড হয়।

 

 

২০১০ সালে ১০ জন মার্কিন গুপ্তচরের বিনিময়ে ছাড়া পান স্ক্রিপাল। পরে ঐ বছরই তিনি যুক্তরাজ্যে আশ্রয় নেন। তবে ঢিল মারলে পাটকেলটি খেতে হয়-সেই জবাবটাই যুক্তরাষ্ট্রকে হাড়ে হাড়ে বুঝিয়ে দিলো বিশ্বে অন্যতম পরাশক্তি রাশিয়া।

Facebook Comments

এ সংক্রান্ত আরো খবর




সম্পাদক: আরিফা রহমান

২৮/এফ ট্রয়োনবী সার্কুলার রোড, ৫ম তলা, মতিঝিল, ঢাকা।
সর্বক্ষণিক যোগাযোগ: ০১৭১১-০২৪২৩৩
ই-মেইল ॥ sangbad24.net@gmail.com
© 2016 allrights reserved to Sangbad24.Net | Desing & Development BY Popular-IT.Com, Server Manneged BY PopularServer.Com