ads

খদ্দের পেতে নতুন কৌশল যৌনকর্মীদের

যৌনকর্মী

সংবাদ২৪.নেট ডেস্ক: খদ্দেরের মন ভরাতে না পারলে খদ্দেরের সংখ্যা দিন দিন কমবে, এটাই বাস্তবতা। এবার তাই খদ্দেরকে পূর্ণ তৃপ্তি দিতে নতুন কৌশল নিয়েছে যৌনকর্মীরা। যেহেতু যৌনকর্ম একটি ঝুঁকিপূর্ণ পেশা। তাই এ কর্ম সম্পাদনের সময় কনডম ব্যবহার করা উচিত। কিন্তু খদ্দেরকে খুশি করতে কনডম ছাড়তে তৈরি হয়েছে ভারতের যৌনকর্মীরা।

 

 

তবে এর বিকল্প হিসেবে এইচআইভি/ এইডসের মতো ঝুঁকিপূর্ণ রোগ ঠেকাতে এখন ব্যবহার করছে পিল। আর ভারতের পশ্চিম বঙ্গের যৌনপল্লীগুলোতে এ পিল বিতরণের কাজ শুরু করেছে যৌনকর্মীদের নিয়ে কাজ করা সংগঠন দুর্বার মহিলা সমন্বয় কমিটি।

 

 

তবে দীর্ঘদিনের প্রচলন অনুযায়ী রাজ্যের সবচেয়ে বড় যৌনপল্লী সোনাগাছিসহ অন্যান্য যৌনপল্লীগুলোতে এখনো ৯৫ ভাগ যৌনকর্মীরা কনডমই ব্যবহার করছে।

 

 

ভারতের একটি সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, দুর্বারের পক্ষ থেকে কনডমের বিপরীতে পিল গ্রহণের প্রতি যৌনকর্মীদের আগ্রহী করে তোলা হচ্ছে। এজন্য তারা সে পিল বিতরণও করছে।

 

 

দুর্বার মহিলা সমন্বয় কমিটির মুখ্য উপদেষ্টা ডাক্তার স্মরজিৎ জানা বলেন, ১৯৯২ সালে কনডম ব্যবহারের উপর বিশেষ গুরুত্ব দেয়ার কাজ শুরু হয়েছিল। তখন মাত্র তিন শতাংশ যৌনকর্মী কনডম ব্যবহার করতেন। এখন সব যৌনপল্লী মিলিয়ে গড়ে ৯৫ শতাংশ যৌনকর্মী কনডম ব্যবহার করছেন।

 

 

কিন্তু সব যৌনকর্মী কনডোম ব্যবহার করবেন, এমন সম্ভবনা নেই বলেই মনে করছে দুর্বার কমিটি। কারণ হিসাবে জানানো হয়েছে, অনেক সময় খদ্দেররা কনডোম ব্যবহার করতে রাজি হন না। ফলে বাধ্য হয়েই জীবনের ঝুঁকি নিতে হয় রাতের ওই নারীদের।

 

 

একটি সূত্র জানিয়েছে, বয়স্ক যৌনকর্মীরা কনডম ব্যবহার করতে পারেন না।

 

 

এ বিষয়ে ডাক্তার স্মরজিৎ জানা বলেন, ‘দাম বেশি হওয়ার কারণে ফিমেল কনডোমের ব্যবহার বাড়ানো সম্ভব হয়নি।’ বিশেষজ্ঞরাও এমন বলেন যে, ফিমেল কনডোম ব্যবহারের মাধ্যমেই স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিষয়ে অনেক বেশি সুরক্ষিত থাকা সম্ভব। আর, এই ধরনের পরিস্থিতির মধ্যেই রাজ্য জুড়ে এ বার পিল ব্যবহারের উপর জোর দিচ্ছে দুর্বার মহিলা সমন্বয় কমিটি।

 

 

ডাক্তার স্মরজিৎ জানা বলেন, ‘২০১৬-র জানুয়ারি থেকে সোনাগাছিতে এই পিলের ব্যবহার শুরু হয়েছে। দুর্বারের অধীনে থাকা রাজ্যের ৫০টি যৌনপল্লিতে এ বার এই পিলের ব্যবহার শুরু হচ্ছে। এই পিল ব্যবহারের মাধ্যমে যৌনকর্মীরা এ বার এইডস্ প্রতিরোধের কাজও করবে।

 

 

ই পিল অর্থাৎ, Pre-Exposure Prophylaxis (PrEP)-এর মাধ্যমে কীভাবে এডস প্রতিরোধের কাজে এগিয়ে যেতে পারবেন যৌনকর্মীরা? দুর্বার মহিলা সমন্বয় কমিটির মুখ্য উপদেষ্টা বলেন, ‘রোজ সকালে একটা করে এই পিল খেতে হবে। তা হলে কোনো খদ্দের কনডোম ব্যবহারে রাজি না হলেও, যৌনকর্মী অসুরক্ষিত হবে না।’

 

 

এইচআইভিতে আক্রান্ত নন অথচ সংক্রমণের সম্ভাবনা রয়েছে, এমন ক্ষেত্রে প্রতিরোধের জন্য এই পিল ব্যবহার করা হয় বলে জানানো হয়েছে।

Facebook Comments

এ সংক্রান্ত আরো খবর




সম্পাদক: আরিফা রহমান

২৮/এফ ট্রয়োনবী সার্কুলার রোড, ৫ম তলা, মতিঝিল, ঢাকা।
সর্বক্ষণিক যোগাযোগ: ০১৭১১-০২৪২৩৩
ই-মেইল ॥ sangbad24.net@gmail.com
© 2016 allrights reserved to Sangbad24.Net | Desing & Development BY Popular-IT.Com, Server Manneged BY PopularServer.Com