ads

রংপুর সিটি মেয়র প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতির ঝুলি

রংপুর সিটি

রংপুর প্রতিনিধি, সংবাদ২৪.নেট : রংপুর সিটি করপোরেশন (রসিক) নির্বাচনের তিন হেভিওয়েট প্রার্থী মুখোমুখি হয়েছিলেন সচেতন নাগরিকদের। মেয়র নির্বাচিত হলে কেমন নগরী উপহার দিবেন- সচেতন নাগরিকদের এমন প্রশ্নের উত্তর দেন তারা। এ সময় তারা তুলে ধরেন নানা প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি।

 

 

হেভিওয়েট তিন মেয়র প্রার্থীকে নিয়ে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের (ডিআই) উদ্যোগে গতকাল বুধবার সকালে নগরীর সিক্সসিজন কনভেনসন সেন্টারে নাগরিক অধিকার বিষয়ক এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই তিন প্রার্থী হলেন- আওয়ামী লীগের সরফুদ্দিন আহম্মেদ ঝন্টু (নৌকা), বিএনপির কাওসার জামান বাবলা (ধানের শীষ) ও জাতীয় পার্টির মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা (লাঙল)।

 

 

আওয়ামী লীগের সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু বলেন, পাঁচ বছর ভালোভাবে সিটি করপোরেশন চালিয়েছি। পুরোদমে সেবা দিয়েছি নগরবাসীকে। পুনরায় সেবা করার সুযোগ পেলে বাকি ওয়ার্ডগুলোতে একটি করে নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্র নির্মাণ করা হবে। তিনি দাবি করেন- তার সময়ে ব্যাপক রাস্তা ও ড্রেনের কাজ হয়েছে, কিছু কাজ চলমান আছে। অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করবেন। শ্যামাসুন্দরী খালের ওপর ৬ কিলোমিটারে ফ্লাইওভার নির্মাণের কথা বলেন ঝন্টু। পাশাপাশি খালটির সংস্কারে হাত দেওয়ার কথা বলেন।

 

 

একজনের প্রশ্ন ছিল নগরীর কাঁচা সড়ক নিয়ে। তিনি জানান, নির্বাচিত হলে কোনো কাঁচা সড়ক রাখবেন না নগরীতে। বর্ধিত এলাকার ট্যাক্স প্রসঙ্গে ঝন্টু বলেন, ৫ বছরে বর্ধিত এলাকার মানুষের কাছে কোনো ধরনের ট্যাক্স নেওয়া হয়নি। অবহেলিত বর্ধিত এলাকায় বিদ্যুৎ না থাকায় বাতির নিচে অন্ধকার- এক নাগরিকের এমন মন্তব্যের উত্তরে তিনি বলেন, পুনরায় নির্বাচিত হলে করবেন বিদ্যুতের ব্যবস্থা। পাশাপাশি পানির সুব্যবস্থাও করবেন।

 

 

বিএনপি প্রার্থী কাওছার জামান বাবলা বলেন, নগরীর বর্ধিত এলাকার রাস্তাঘাটের বেহাল দশার কারণে সেখানকার মানুষ কষ্টে আছেন। মেয়র নির্বাচিত হলে বর্ধিত এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়ন করবেন। নগরীর বেহাল সড়কের সংস্কার করে যানজট নিরসন করবেন। বাবলা বলে, শ্যামাসুন্দরী এখন মৃত প্রায়। খালটির পুরো এলাকাজুড়ে গড়ে উঠেছে মশার কারখানা। তিনি নির্বাচিত হলে সংস্কার করবেন শ্যামাসুন্দরী খালের। বেকার সমস্যা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গ্যাস নিয়ে আসার চেষ্টা করে যাবেন। শিল্প কারখানা প্রতিষ্ঠায় উদ্যোগ নিবেন। তবেই বেকার সমস্যার সমাধান হবে। নির্বাচিত হলে ফুটপাত দখলমুক্ত করবেন বলেও প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। পাশাপাশি পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করবেন হকারদের।

 

 

জাতীয় পার্টির মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, রংপুর নগরীতে যানজট এখন নিত্য ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ যানজটের মূল কারণ হলো- অবৈধ অটোরিক্সা। তিনি নির্বাচিত হলে অবৈধ অটোরিক্সা দূর করবেন। রংপুরে তেমন শিল্প-কারখানা গড়ে উঠেনি। এর কারণ হিসেবে তিনি বলছেন গ্যাস না থাকার কথা। মেয়র নির্বাচিত হলে গ্যাস নিয়ে আসার চেষ্টা করবেন। গ্যাস আসলেই গড়ে উঠবে শিল্প-কারখানা। দূর হবে বেকারত্ব। ড্রেনেজ ও জলাবদ্ধতা বিষয়ে তিনি বলেন, ড্রেনের বেহালদশা ও জলাবদ্ধতার কারণে নগরবাসীর কষ্টের শেষ নেই।

 

 

তিনি নির্বাচিত হলে এ সমস্যার সমাধান করবেন। বর্ধিত এলাকার সঙ্গে মূল নগরীর উন্নয়ন বৈষম্য দূর করার কথা বলেন। তিনি শ্যামাসুন্দরী খালের দুই ধার দখলমুক্ত করার কথা বলেন। আর স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নের ব্যাপারে মোস্তফা বলেন, রংপুর সদর হাসপাতাল চালুর চেষ্টা চালিয়ে যাবেন। সদর হাসপাতাল চালু হলে অনেক মানুষ সেবা পাবে।

 

 

মতবিনিময় সভার সঞ্চালনা করেন- ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের উপ-পরিচালক আমিনুল এহসান। সভায় ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের চিফ অব পার্টি কেটি ক্রোক ও টম ফোর্ডের পাশাপাশি রংপুরের সচেতন নাগরিকের মধ্যে প্রফেসর শাহ-আলম, অ্যাডভোকেট জাকিয়া সুলতান চৈতি, ডা. মফিদুল ইসলাম মান্টু, অধ্যক্ষ ফখরুল আনাম বেনজু, শাহিদার রহমান জোছনা, আফতাব হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা আকবর হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments

এ সংক্রান্ত আরো খবর




সম্পাদক: আরিফা রহমান

২৮/এফ ট্রয়োনবী সার্কুলার রোড, ৫ম তলা, মতিঝিল, ঢাকা।
সর্বক্ষণিক যোগাযোগ: ০১৭১১-০২৪২৩৩
ই-মেইল ॥ sangbad24.net@gmail.com
© 2016 allrights reserved to Sangbad24.Net | Desing & Development BY Popular-IT.Com, Server Manneged BY PopularServer.Com