ads

ভোটারদের তুলনায় যাদের বেশি সময় দিচ্ছেন প্রার্থীরা

রংপুর সিটি

রংপুর প্রতিনিধি, সংবাদ২৪.নেট: রংপুর সিটি কর্পোরেশন (রসিক) নির্বাচনের উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছে রংপুর নগরীতে। প্রার্থীরা শুরু করেছেন প্রচারণা। কিন্তু ভোটারদের চেয়ে গণমাধ্যমকে বেশি সময় দিচ্ছেন প্রার্থীরা এমন অভিযোগ নগরীর ভোটারদের।

 

 

নগরীর ২০ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা রিনা বেগম জানান, প্রার্থীরা ভোটারদের কাছে নির্বাচনের সময় বেশি আসে। এ সময় প্রচারণার জন্য ভোটারদের কাছে প্রার্থীরা ভোট চাইতে আসবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এ বছর কিছু প্রার্থীকে দেখছি ভোটারদের চাইতে তারা মিডিয়াকে বেশি সময় দিচ্ছেন। প্রচারণার সময় তারা মিডিয়ার নির্দেশনা অনুযায়ী লিফলেট বিতরণ করছেন।

 

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নগরীর খামার মোড়ের এক চা ব্যবসায়ী বলেন, গত মঙ্গলবার একজন মেয়র প্রার্থী এক টেলিভিশন চ্যানেলের নির্দেশনা অনুযায়ী লিফলেট বিতরণ করছিলেন। ঐ মিডিয়াকর্মী যেভাবে ঐ মেয়র প্রার্থীকে লিফলেট বিতরণের নির্দেশনা দিচ্ছিলেন তিনি ঠিক সেভাবে লিফলেট বিতরণ করছিলেন।

 

 

রংপুর সিটি বাজারের ব্যবসায়ী আলী আহমেদ বলেন, প্রার্থীরা যদি মিডিয়ায় সময় দেয়ার চেয়ে ভোটারদের কাছে বেশি যায়, আমার মনে হয় ভোটারদের কাছাকাছি যাবার কারণে তাদের জয়ের পথ আরো সুগম হবে।

 

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জাতীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষক পরিষদের চেয়ারম্যান ও বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহ, বিটিএফও বলেন, এমন এক সময় ছিল যখন নির্বাচনের সময় প্রার্থীরা ভোটারদের বাড়ি বাড়ি ভোট চাইতে যেত, কোলাকুলি করতো, একসাথে খেতেও বসতো। বৃদ্ধ ভোটারদের কাছে দোয়া নিতে যেত। ভোটের সময় চারদিকে উৎসবের মত অবস্থা বিরাজ করতো। ভোটাররা নির্বাচনী এলাকার বাইরে থাকলে নির্বাচনের সময় ছুটি নিয়ে নিজ এলাকায় চলে আসতো ভোট দিতে। কিন্তু এখন আর সে ধরনের দৃশ্য দেখা যায় না। তিনি বলেন, ভোটারদেরকে প্রার্থীরা আর সেভাবে সময় দেন না। ভোটার আর প্রার্থীর মধ্যে পূর্বের অন্তরঙ্গতা আর চোখে পড়ে না। প্রার্থীরা এখন প্রচারণার জন্য বিভিন্ন গণমাধ্যমের দিকে ঝুঁকছেন। ফলে দীর্ঘ মেয়াদী দুরত্ব তৈরী হচ্ছে প্রার্থীদের সাথে ভোটারদের।

 

 

তিনি আরো বলেন, বর্তমানের গণমাধ্যমগুলোও নিয়ন্ত্রণহীনভাবে সংবাদ সংগ্রহে ব্যস্ত। যেভাবে হোক সংবাদ সংগ্রহ করতে হবে এমন চিন্তাভাবনা সকলের। সেটা হোক কৃতিমতা বা বাস্তব। কিন্তু আমি মনে করি গণমাধ্যমকে সময় দেয়ার চাইতে যদি প্রার্থীরা ভোটারদের সাথে একটু বেশি সময় ব্যয় করেন তবে ভোটারদের সাথে তাদের একটা আন্তরিকতার সম্পর্ক সৃষ্টি হবে, অন্যদিকে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেবার ক্ষেত্রে ভোটারদের মধ্যে পূর্বের আগ্রহ ফিরে আসবে। যা গণতন্ত্রের জন্য সুখকর হবে।

Facebook Comments

এ সংক্রান্ত আরো খবর




সম্পাদক: আরিফা রহমান

২৮/এফ ট্রয়োনবী সার্কুলার রোড, ৫ম তলা, মতিঝিল, ঢাকা।
সর্বক্ষণিক যোগাযোগ: ০১৭১১-০২৪২৩৩
ই-মেইল ॥ sangbad24.net@gmail.com
© 2016 allrights reserved to Sangbad24.Net | Desing & Development BY Popular-IT.Com, Server Manneged BY PopularServer.Com