ads

ঠিকভাবে দম নিন: প্রাণবন্ত হোন, প্রশান্ত হোন

দম নেয়া

সংবাদ২৪.নেট ডেস্ক: গভীর শ্বাস দেহের প্রাণশক্তি বাড়িয়ে রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে করে সক্রিয়, জীবনকে রাখে সচল। যদিও ৯০ ভাগ মানুষই সঠিক প্রক্রিয়ায় শ্বাসক্রিয়ার ব্যবহার জানেন না।

আমরা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই দম গ্রহণ করতে অভ্যস্ত। নাক ও শ্বাসনালী দিয়ে বাতাস আপনা আপনিই ফুসফুসে প্রবেশ করে এবং বেরিয়ে আসে। সাধারণভাবে দম কীভাবে আসছে ও যাচ্ছে তা খেয়ালই করি না। আমাদের অগোচরেই এই দমের মাধ্যমে শরীরের ভেতর যে কি পরিবর্তন ঘটে যাচ্ছে তা একবার চিন্তা করলে বিস্ময়ের কোন সীমা থাকে না।

একবার দম নেয়ার সাথে সাথে শরীরের ৫ ট্রিলিয়ন রক্তকণিকা বাতাসের মুখোমুখি হয়। প্রতিটি রক্তকনিকায় রয়েছে ২৮০ মিলিয়ন হিমোগ্লোবিন অণু। আর প্রতিটি হিমোগ্লোবিন অণু আটটি করে অক্সিজেন পরমাণুকে ধরতে ও পরিবহন করতে পারে। প্রতিবার দমের সাথে ১১-র পাশে একুশটি শূন্য বসালে যে সংখ্যা হয় সে পরিমাণ অক্সিজেন পরমাণু শরীরে প্রবেশ করে।

আমরা জানি আমাদের জীবকোষের সবচেয়ে প্রয়োজনীয় খাবার হচ্ছে এই অক্সিজেন এবং তা রক্তের মাধ্যমে প্রতিটি জীবকোষে প্রেরিত হয়। আমাদের সচেতন প্রচেষ্টা ছাড়াই হার্ট এই কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। রক্তে পর্যাপ্ত অক্সিজেনের সরবরাহ থাকলে প্রতিটি কোষ তার প্রয়োজনীয় অক্সিজেন লাভ করতে পারে।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে আমরা কি রক্তে পর্যাপ্ত অক্সিজেন সরবরাহ করছি? আমাদের মধ্যে শতকরা ৯০ জনই যেহেতু ঠিকভাবে দম নেই না তাই রক্ত পর্যাপ্ত পরিমাণ অক্সিজেন পায় না ফলে দেহ কোষে প্রাণশক্তির অভাব সৃষ্টি হয়। আমরা অলস ও নির্জীব হয়ে পড়ি।

আমাদের অবসাদ, ক্লান্তি, ক্রনিক সর্দি, নার্ভাসনেস এগুলো চলে আসে এর অন্যতম প্রধান কারণ সঠিক প্রক্রিয়ায় দম না নেওয়া। আমেরিকান বক্ষব্যধি বিশেষজ্ঞ ডাঃ রুডি ট্যাডারহিল দীর্ঘ গবেষণার পর বলেছেন যে, ঠিকভাবে দম নিয়ে আমরা এই সমস্যাগুলো থেকে মুক্তি পেতে পারি।

দম নেয়ার ক্ষেত্রে আমাদের একটি প্রধান ত্রুটি হচ্ছে, বুক ফুলিয়ে দম না নেওয়া, ফলে পর্যাপ্ত অক্সিজেন গ্রহণে আমরা ব্যর্থ হই। সাধারণভাবে দম নেয়ার সময় আমাদের ওপরের পেট স্ফীত হয়। বুক তেমন না ফোলানোর কারণে পর্যাপ্ত বাতাস ফুসফুসে প্রবেশ করতে পারে না। ফলে দেহকোষ সবসময় প্রয়োজনীয় অক্সিজেন থেকে বঞ্চিত থাকে।

আমরা জানি, বুকের পাঁজরের নিচেই আমাদের ফুসফুস অবস্থিত। এর নিজস্ব কোন পেশী নেই। তাই নিজে নিজে স্ফীত বা সঙ্কুচিত হতে পারে না। আমরা বুক ফোলালে ফুসফুস ফুলে ওঠে এবং অক্সিজেন ফুসফুসে প্রবেশ করে। পরিপূর্ণভাবে বুক ফোলালে একটি বাস্কেট-বলের সমপরিমাণ বাতাস ফুসফুস ধারণ করতে পারে। তাই আমরা বুকটা যত ফোলাতে শিখবো ফুসফুসের মাধ্যমে শরীরে অক্সিজেনের সরবরাহ তত বাড়বে এবং সেইসাথে বেশি পরিমাণে কার্বন-ডাই-অক্সাইড শরীর বের করে দিতে পারবে।

ঠিকভাবে দম নেয়ার বিষয়টি প্রাচীন সাধকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলো সভ্যতার ঊষালগ্নে। তাই দম চর্চার ক্ষেত্রে আমাদের ঐতিহ্য কমপক্ষে পাঁচ হাজার বছর আগের। অবশ্য এর চর্চা সীমিত ছিলো প্রধানত সাধক, দরবেশ ও মুনি-ঋষিদের মধ্যে। তারা ঠিকভাবে দম নিতেন, সে কারণে অত্যন্ত প্রাণবন্ত থাকতেন। তাঁদের ত্বক, চোখ ও চেহারায় যে ঔজ্জ্বল্য ও আভা দেখা যেত তার অন্যতম কারণ ছিলো ঠিকভাবে দম নেয়া, পর্যাপ্ত অক্সিজেন গ্রহণ। আপনিও ইচ্ছে করলে কয়েকটি সাধারণ নিয়ম পালন করে অত্যন্ত প্রাণবন্ত হয়ে উঠতে পারেন।

এজন্যে বুক ভরে দম নেয়ার চর্চা করতে হবে। এতে পেট ও পাকস্থলির ব্যায়াম হয়। গভীরভাবে দম চর্চা করলে ফুসফুস ভালোভাবে কাজ করে। পেট ও পাকস্থলিতে রক্তচলাচল স্বাভাবিক হয়। খাবার হজমজনিত সমস্যাও দ্রুত কমে আসে। যা থেকে পেতে পারেন সহজ স্বতঃস্ফূর্ত জীবন।

এখন আমরা জানবো ডিপ ব্রিথিংয়ের কিছু উপকারিতা সম্পর্কে:

* গভীর দমচর্চা নার্ভাস সিস্টেমে হরমনের কার্যকারিতা স্বাভাবিক থাকে।
* মানসিক চাপ কমায় ও টেনশন দূর করে।
* শরীরের ভেতরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রতঙ্গকে সুস্থ ও স্বাভাবিক রাখে।
* মেজাজ ভালো রাখে।
* রক্ত দূষণমুক্ত করে ও রক্তচলাচল স্বাভাবিক রাখে।
* ফুসফুস সুস্থ রাখে।
* দেহের বাড়তি ওজন কমায়।

এছাড়া গভীর দমচর্চা ব্যথানাশক হিসেবে কাজ করে। অক্সিজেন প্রাণশক্তির উৎস। তাই বুক ভরে দম নিলে প্রাণশক্তিতে দেহ প্রাণবন্ত হয়ে উঠবে, এতে কোনো সন্দেহ নেই। নিয়মিত চর্চা করলে মানসিক ও শারিরীক পরিবর্তন অনুভব করা যাবে।

নিয়মিত চর্চায় মেধা হবে শাণিত। কেন্দ্রীয় নার্ভাস সিস্টেমকে করবে আরোও সক্রিয়।

কয়েকটি আসন ও প্রাণায়াম চর্চা :
উজ্জীবন, আবেশন, নাসায়ন, পদ্মাসনে প্রাণায়াম।

আসলে দমের ব্যাপারে একটি সহজ সূত্র হচ্ছে যখন আপনি ঊদ্দীপ্ত হতে চাইছেন তখন বুক ফুলিয়ে দম নিন। লম্বা দম নিন। আর যখন আপনি শিথিল ও প্রশান্ত হতে চাইছেন তখন ধীরে দম নিন ও উপরের পেটে দম নিন। যখন আপনি ক্লান্ত অনুভব করেন তখনই চোখ বন্ধ করে গভীরভাবে দম নিয়ে ধীরে ধীরে দম ছাড়ুন।

Facebook Comments

এ সংক্রান্ত আরো খবর




সম্পাদক: আরিফা রহমান

২৮/এফ ট্রয়োনবী সার্কুলার রোড, ৫ম তলা, মতিঝিল, ঢাকা।
সর্বক্ষণিক যোগাযোগ: ০১৭১১-০২৪২৩৩
ই-মেইল ॥ sangbad24.net@gmail.com
© 2016 allrights reserved to Sangbad24.Net | Desing & Development BY PopularITLtd.Com, Server Manneged BY PopularServer.Com