ads

তরুণীর বর্ণনায় যৌন নির্যাতনের সেই রাত

যৌন নির্যাতন

সংবাদ২৪.নেট ডেস্ক : ভারতের ব্যাঙ্গালুরুতে ইংরেজি নববর্ষের প্রথম প্রহরে মেয়েদের ওপর প্রকাশ্যে যে ব্যাপক যৌন নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছিল তার অনেক বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণই পুলিশের হাতে পৌঁছেছে।

বিবিসি বলছে, ওই ঘটনার পর কয়েকজন নারী দাবি করেছেন, সেই রাতে তারা ব্যাঙ্গালুরুর নগর কেন্দ্রে যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছেন। তবে পুলিশের কাছে এ নিয়ে এখনো কোন সুনির্দিষ্ট অভিযোগ কেউ  করেনি।

শারীরিকভাবে নির্যাতনের শিকার এক নারী তার ওপর যৌন নির্যাতনের ভয়ঙ্কর বিবরণ দিয়েছেন। পেশায় মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ এই নারী নিজেকে পূজা পরিচয় দিয়ে ঘটনার বর্ণনায় জানিয়েছেন সেই ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা।

পূজা বলেন, ৩১শে ডিসেম্বর রাতে আমি ব্যাঙ্গালুরুর মহাত্মা গান্ধী রোডের একটি বারে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিই। রাত সাড়ে এগারোটার দিকে আমি বার থেকে বেরিয়ে আসি একটা ফোন কল করার জন্য। তখন সবকিছুই বেশ শান্ত বলে মনে হচ্ছিল। সাড়ে বারোটার দিকে আমি আমার এক বন্ধুর ফোন পাই। আমাকে সেখান থেকে তুলে নেয়ার কথা ছিল ওর। কিন্তু আমার বন্ধু আমাকে জানালো, পুলিশের ব্যারিকেডের কারণে ও আসতে পারছে না। ফলে শংকর নাগ থিয়েটারের কাছে ওকে মোটর সাইকেল পার্ক করতে হয়েছে।

তিনি বলেন, আমার বন্ধু আমাকে সেদিকে হাঁটতে বললো। আর ও আমার দিকে হাঁটা শুরু করলো। মাঝপথে কোথাও আমাদের দেখা হবে এটাই ছিল আমাদের পরিকল্পনা। আমি আমার বন্ধুদের কাছ থেকে বিদায় নিয়ে ব্রিগেড রোড ধরে হাঁটা শুরু করলাম। পথে আমি দেখলাম লোকজন হাঁটছে, ব্যস্ত পায়ে এদিক সেদিক যাচ্ছে।

ব্যাঙ্গালুরুকে আমি খুব নিরাপদ শহর বলে জানতাম। কিন্তু এরপর যা ঘটলো তা দেখে আমি শিউরে উঠলাম। এটা যে শুধু আমার ক্ষেত্রে ঘটেছে তা নয়। আরও অনেক মেয়ে একই ঘটনার শিকার হচ্ছিল। ওরা সবাই ছিল ভীত-সন্ত্রস্ত্র।

ঘটনার বর্ণনায় ওই নারী বলেন, হঠাৎ একজন আমাকে ধাক্কা দিল। আমি মাটিতে পড়ে গেলাম। আমাকে টেনে তুলবে এরকম কাউকে আশে-পাশে দেখতে পাচ্ছিলাম না। এরপর একদল মেয়ে আমার দিকে এগিয়ে এসে উঠে দাঁড়াতে সাহায্য করলো। ওদের বন্ধুরা সবাইকে ঘিরে একটা বেষ্টনি তৈরি করলো যাতে মেয়েরা নিরাপদে হাঁটতে পারে। আমি ওদের জিজ্ঞেস করলাম ওদের সঙ্গে যেতে পারি কিনা। যখন আমরা এক সঙ্গে এভাবে হেঁটে যাচ্ছিলাম তখনো অনেক পুরুষ মানুষ আমাদের শরীরের এখানে সেখানে স্পর্শ করার চেষ্টা করছিল।

তিনি বলেন, যারা এই কাজ করছিল তাদের একজনের চেহারাও আমি মনে করতে পারি না। যখনই আমি এদের চেহারা দেখতে ঘুরে দাঁড়াচ্ছি তখনই তারা আমার শরীর হাতড়াচ্ছে বা আমাকে টানা-হেঁচড়া করছে। সেখানে এত লোক যে কে এই কাজ করছে আমার পক্ষে বলা সম্ভব নয়। ব্রিগেড রোডে পুলিশ লাঠিচার্জ করলো। তখন লোকজন নানা দিকে দৌড়াতে শুরু করলো।

পূজা বলেন, আমার নিজেকে খুব অসহায় লাগছিল। আমার নিজের হাত পা আছে। আমি চাইলে তাদের ওপর হাত পা চালাতে পারি, ওদের চড়াতে পারি। কিন্তু আমি কিছুই করতে পারছিলাম না। আমি বুঝতে পারছিলাম না কে আমার শরীরে হাত দিচ্ছে।

Facebook Comments

এ সংক্রান্ত আরো খবর




সম্পাদক: আরিফা রহমান

২৮/এফ ট্রয়োনবী সার্কুলার রোড, ৫ম তলা, মতিঝিল, ঢাকা।
সর্বক্ষণিক যোগাযোগ: ০১৭১১-০২৪২৩৩
ই-মেইল ॥ sangbad24.net@gmail.com
© 2016 allrights reserved to Sangbad24.Net | Desing & Development BY PopularITLtd.Com, Server Manneged BY PopularServer.Com