ads

‘নিজেই নিজের গল্প হও’

টনি মরিসন

সংবাদ২৪.নেট ডেস্ক : অন্যের সফলতার গল্প পড়ার দরকার নেই, তুমি নিজেই নিজের গল্প হও। অন্য কারো সাফল্য দেখে নিজের সফলতাকে বিচার কোরো না। যে সম্ভাবনা তোমার মধ্যে রয়েছে, সেটার জন্যে নিজেকে বিশ্বাস করো। জয়ী হওয়ার জন্যেই তুমি পথে নেমেছ। এ জয়টা হচ্ছে নিজের সম্ভাবনাময় শক্তির জয়। এ জয় হলো শ্রেষ্ঠ হিসাবরক্ষক, প্রকৌশলী, শিক্ষক কিংবা তুমি যা হতে চাও- তা হওয়ার জয়।  

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েলসলি কলেজের সমাবর্তনের ভাষণে এসব কথা বলেন মার্কিন ঔপন্যাসিক, সম্পাদক এবং প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক টনি মরিসন।

সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার থেকে শুরু করে তিনি অর্জন করেন ন্যাশনাল হিউম্যানিটিজ মেডেল, প্রেসিডেনশিয়াল মেডেল অব ফ্রিডম ইত্যাদি।

টনি মরিসন তার সমাবর্তনী বক্তব্যে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এখন শুধু সামনে এগিয়ে যাওয়ার পালা। পৃথিবীর অনেক অবদান, অগণিত অর্জন শেষ পর্যন্ত সম্ভব হয়নি শুধু এগিয়ে না যাওয়ার কারণে। তিনি বলেন, তোমরা এখন মুক্ত। তোমাদের সামনে এখন অবারিত জীবনের নতুন যাত্রাপথ। শিক্ষাজীবনের যত ঋণ, যত দায়- সেসব শোধার সময় এখন। তোমরা যাত্রা শুরুর পর আগের গৎবাঁধা সব পথ-ম্যাপ ছুড়ে ফেলতে পারো।

পথচলার পরিকল্পনা নতুন করে তোমার নিজেকেই তৈরি করতে হবে। অভিনব ও চিরসতেজ ভঙ্গিতে পৃথিবীটাকে দেখতে হবে। অবাঞ্ছিত বিষয় বর্জন করে ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গিতে সবকিছুকে পর্যবেক্ষণ করতে হবে।

অনেকে আছেন যারা অনেক পরে জানতে পারেন কোন বিষয়ে তার আগ্রহ বেশি। আবার কেউ কেউ আছেন, যারা এটা কখনোই জানতে পারেন না। এরই মধ্যে তুমি যদি তোমার লক্ষ্যটাকে স্থির করে থাকো অথবা লক্ষ্যস্থির করার চেষ্টা করছ তারা মনে রেখো, কৌতূহলই এনে দেবে তোমার জীবনের সফলতা। অন্যদিকে স্বপ্ন সত্যি করতে হলে তোমার ভেতরে যে ‘তুমি’ আছে, তার কথা শুনতে হবে। আকাঙ্ক্ষা যদি বড় হয়, তোমার স্বপ্ন সত্যি হবেই। সততা, নৈতিকতা ও আগ্রহ নিয়ে কাজ করতে হবে। যদি তোমার স্বপ্নের সঙ্গে আপস না করো, তুমি সফল হবেই।

পথ বেছে নিতে তুমি যেমন স্বাধীন, সফল হওয়াটাও তোমার জন্যে উন্মুক্ত। দরকার শুধু কঠোর পরিশ্রম এবং একটি স্বপ্ন।

আমরা প্রত্যেকেই নিজ নিজ আদর্শের জন্যে সংগ্রাম করি। জীবনে সংগ্রাম করাটাই তো চিরসত্য। দরিদ্র দেশের ছোট্ট কোনো গাঁয়ে নাকি উন্নত দেশের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে একটি শিশু জন্ম নিল, সেটি মুখ্য বিষয় নয়। আমরা সব মানুষের আত্মমর্যাদা ও মৌলিক সাম্যতায় বিশ্বাস করি। বিশ্বাস করি, সব মানুষ শান্তি চায়। আমরা অসাধারণ সুন্দর এক পৃথিবীর বাসিন্দা। যদিও তা বিভক্ত বিভিন্ন দলে, তবু আমরা এক মানব সম্প্রদায়েরই অংশ। আমি যখন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলাম, তখন আমি হঠাৎ করেই অধ্যাপকদের রুমে হানা দিয়ে প্রশ্ন করতাম- জীবনের অর্থ কী? অধ্যাপকরা ঘাবড়ে যেতেন। ভাবতেন, আমার ‘নিওরোলজিক্যাল ডিজঅর্ডার’ হয়েছে। সবাই যে এমনটা ভাবতেন, তা কিন্তু নয়। অনেকেই উত্তর দেয়ার চেষ্টা করতেন। কেউ বলতেন, ‘সুখ’ আবার কেউবা বলতেন, ‘জ্ঞান’। আমার কাছে জীবনের অর্থ হলো, মানুষকে সুখী করার জন্যে কাজ করা। তোমাদের কাছেও জীবনের আলাদা আলাদা অর্থ থাকতে পারে। আর যদি না থাকে, তাহলে এ পথে চেষ্টা করে দেখতে পারো। অন্যের জন্যে কিছু করার মধ্য দিয়ে নিজের আনন্দ খুঁজে নাও। তাহলেই পৃথিবীটা হয়ে উঠবে আরো সুন্দর।

Facebook Comments

এ সংক্রান্ত আরো খবর




সম্পাদক: আরিফা রহমান

২৮/এফ ট্রয়োনবী সার্কুলার রোড, ৫ম তলা, মতিঝিল, ঢাকা।
সর্বক্ষণিক যোগাযোগ: ০১৭১১-০২৪২৩৩
ই-মেইল ॥ sangbad24.net@gmail.com
© 2016 allrights reserved to Sangbad24.Net | Desing & Development BY PopularITLtd.Com, Server Manneged BY PopularServer.Com