ads

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে চাকরি

চাকরি

সংবাদ২৪.নেট ডেস্ক:
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের বিভিন্ন বিভাগে নিয়োগ দেওয়া হবে ৪৭৯ জন। এ ছাড়া উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পে নেওয়া হবে ১৩৭ জন উপজেলা প্রোগ্রাম অফিসার। তৃতীয় প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচিতে (পিইডিপি-৩) নেওয়া হবে ১৮১ জন রিসোর্স পার্সন।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের বিভিন্ন দপ্তরে ৪৭৯ নিয়োগ

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের বিভিন্ন দপ্তরের জন্য সহকারী লাইব্রেরিয়ান-কাম-ক্যাটালগার পদে নেওয়া হবে ১৬ জন। আবেদনের যোগ্যতা—লাইব্রেরি সায়েন্স ডিগ্রি বা ডিপ্লোমাসহ দ্বিতীয় শ্রেণিতে স্নাতক। উচ্চমান সহকারী-কাম-হিসাবরক্ষক পদের সংখ্যা ১১৫টি। যোগ্যতা স্নাতকসহ দুই বছরের অভিজ্ঞতা। অফিস সহকারী-কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক পদে নেওয়া হবে ১৮৪ জন। আবেদনের যোগ্যতা এইচএসসি। কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও টাইপিংয়ে প্রতি মিনিটে বাংলায় ২০ শব্দ ও ইংরেজিতে ২৮ শব্দের গতি থাকতে হবে। হিসাব সহকারী পদে নিয়োগ দেওয়া হবে ১৬৪ জন। এতেও আবেদনের যোগ্যতা এইচএসসি। ১ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে প্রার্থীর বয়স হতে হবে ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। তবে মুক্তিযোদ্ধা কোটার প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ৩২ বছর।

আবেদন যেভাবে

আবেদন করতে হবে অনলাইনে। dpe.teletalk.com.bd এবং www.dpe.gov.bd ওয়েবসাইটে লগইন করলে একটি লিংক পাওয়া যাবে। ওই লিংকে প্রবেশ করে নির্দেশনা মেনে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। আবেদন সাবমিট করার পর Applicant copy প্রিন্ট নিতে হবে। Applicant copy থেকে পাওয়া ইউজার আইডি ব্যবহার করে আবেদন ফি জমা দিতে হবে। এসএমএসের মাধ্যমে পাওয়া ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড সংরক্ষণ করতে হবে। শুরু হয়ে গেছে আবেদন প্রক্রিয়া, চলবে ৩০ অক্টোবর রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত। টেলিটক মোবাইল থেকে এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার ফি পরিশোধ করতে হবে। লিখিত পরীক্ষার জন্য নির্বাচিত প্রার্থীদের এসএমএসের মাধ্যমে জানানো হবে। পরে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে লিখিত পরীক্ষার প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে হবে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিতে হবে।

বেতন-ভাতা

সহকারী লাইব্রেরিয়ান-কাম-ক্যাটালগার ও উচ্চমান সহকারী-কাম-হিসাবরক্ষক পদে বেতন পাওয়া যাবে ১০২০০ টাকার স্কেলে ২৪৬৮০ টাকা। অফিস সহকারী-কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক ও হিসাব সহকারী পদের বেতন ৯৩০০ টাকা স্কেলে ২২৪৯০ টাকা।

পরীক্ষা পদ্ধতি

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের নিয়োগ শাখায় কর্মরত প্রশাসনিক কর্মকর্তা আলাউদ্দিন আল আজাদ জানান, সরকারি নিয়োগ পরীক্ষার নিয়ম অনুসারে মোট দুই ধরনের পরীক্ষা নেওয়া হয়। তবে অফিস সহকারী-কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক পদের জন্য লিখিত পরীক্ষায় পাসের পর বসতে হবে ব্যবহারিক বা টাইপিং টেস্ট পরীক্ষায়। ১০০ নম্বরের পরীক্ষা নেওয়া হয়। এর মধ্যে ৮০ নম্বরের লিখিত ও ২০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা হবে। এমসিকিউ বা সংক্ষিপ্ত উত্তর পদ্ধতিতে লিখিত পরীক্ষা হয়ে থাকে। জানা যায়, লিখিত পরীক্ষায় সাধারণ জ্ঞান, বাংলা, ইংরেজি এবং গণিত—এই চারটি বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের ডাকা হবে মৌখিক পরীক্ষার জন্য।

পরীক্ষার প্রস্তুতি

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন) শামস উদ্দিন আহমেদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রশ্ন করা হবে নিয়োগ কর্তৃপক্ষের চাওয়া পদের বিপরীতে শিক্ষাগত যোগ্যতার ওপর। পদ অনুসারে করা হবে আলাদা প্রশ্ন। সহকারী লাইব্রেরিয়ান-কাম-ক্যাটালগার ও উচ্চমান সহকারী-কাম-হিসাবরক্ষক পদের জন্য পদসংশ্লিষ্ট প্রশ্নসহ বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে প্রশ্ন করা হবে।

অফিস সহকারী-কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক ও হিসাব সহকারী পদের জন্য এসএসসি ও এইচএসসির বোর্ড নির্ধারিত বাংলা ও ইংরেজি বইগুলো থেকে প্রশ্ন করা হতে পারে। সে ক্ষেত্রে এইচএসসি ও এসএসসির পাঠ্য বইগুলো রপ্ত করলে কাজে দেবে। অষ্টম শ্রেণির পাটিগণিত ও বীজগণিত থেকেও প্রশ্ন করা হয়। তাই চর্চা রাখতে হবে এ দুটি বিষয়েও। সাধারণ জ্ঞানে আপডেট রাখতে সাম্প্রতিক বিষয়ে নজর রাখতে হবে।

মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পে ১৩৭ জন নিয়োগ

মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পে ১৩৭ জন উপজেলা প্রোগ্রাম অফিসার নিয়োগ দেওয়া হবে। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিটি উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর ওয়েবসাইটে (www.bnfe.gov.bd) পাওয়া যাবে। ২৫ অক্টোবর ছিল আবেদনের শেষ তারিখ। এটি ছাড়াও যাঁরা ২৩ মার্চ ২০১৫ প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি অনুসারে আবেদন করেছিলেন, তাঁরাও অংশ নেবেন নিয়োগ পরীক্ষায়।

উপজেলা প্রোগ্রাম অফিসার নিয়োগ কমিটির সদস্য ও প্রকল্প পরিচালক (যুগ্ম সচিব) মো. শফিকুল ইসলাম জানান, আবেদন যাচাই-বাছাইয়ের পর যোগ্যদের ঠিকানায় পরীক্ষার জন্য পত্র পাঠানো হবে। নিয়োগের ক্ষেত্রে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। লিখিত পরীক্ষায় সাধারণ জ্ঞান, বাংলা, ইংরেজি, গণিতসহ সাম্প্রতিক সময়ের নানা বিষয়ের ওপর প্রশ্ন করা হয়।

মৌখিক পরীক্ষায় কম্পিউটারের নানা বিষয়সহ সাম্প্রতিক ও উপস্থিত বুদ্ধিমত্তা যাচাইয়ের বিষয়েও প্রশ্ন করা হয়। মৌখিক পরীক্ষার সময় সব সনদপত্রের মূল কপি সঙ্গে নিতে হবে। উপজেলা প্রোগ্রাম অফিসার পদে নিয়োগ পেলে সর্বসাকল্য মাসিক বেতন পাবেন ২৪৭০০ টাকা।

তৃতীয় প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচিতে ১৮১ রিসোর্স পার্সন নিয়োগ

প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন সময়ের জন্য ১৮১ জন রিসোর্স পার্সন নিয়োগ দেবে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। যোগ্যতা বিএডসহ বিএ, বিকম বা বিএসসি। বয়স হতে হবে ৫৯ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে।

অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বা শিক্ষাসংক্রান্ত কর্মকর্তারা আবেদন করতে পারবেন। সচিব, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় বরাবর আবেদন করতে হবে।

আবেদনপত্র যুগ্ম সচিব (উন্নয়ন-১), প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, কক্ষ নম্বর ৬১৬, ভবন নম্বর ৬, সপ্তম তলা, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা-১০০০—এই ঠিকানায় ৩০ অক্টোবরের মধ্যে পৌঁছাতে হবে। খামের ওপর পদের নাম ও নিজ জেলার নাম উল্লেখ করতে হবে। আবেদনের সঙ্গে প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত তিন কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি ও জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি, শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের ফটোকপি, এলপিআর বা পিআরএল মঞ্জুরের আদেশের কপি, কোটার প্রার্থীর ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সনদের কপি ও লিখিত আবেদনের সঙ্গে ২০০ টাকার ট্রেজারি চালান যুক্ত করতে হবে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিয়োগ শাখা সূত্রে জানা যায়, প্রাথমিক বাছাইয়ের পর যোগ্য প্রার্থীদের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার তারিখ ও স্থান প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে (www.dpe.gov.bd বা www.mopme.gov.bd), ডাকযোগে, এসএমএস বা ইমেইলের মাধ্যমে জানানো হবে। একজন রিসোর্স পার্সনের সাকল্য বেতন হবে অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে সর্বশেষ জারি করা উন্নয়ন প্রকল্পে কর্মরত জনবলের বেতন স্কেল অনুসারে।

Facebook Comments

এ সংক্রান্ত আরো খবর




সম্পাদক: আরিফা রহমান

২৮/এফ ট্রয়োনবী সার্কুলার রোড, ৫ম তলা, মতিঝিল, ঢাকা।
সর্বক্ষণিক যোগাযোগ: ০১৭১১-০২৪২৩৩
ই-মেইল ॥ sangbad24.net@gmail.com
© 2016 allrights reserved to Sangbad24.Net | Desing & Development BY Popular-IT.Com, Server Manneged BY PopularServer.Com